কন্টেন্ট রাইটিং কি? বাংলায় কন্টেন্ট রাইটিং করে ইনকাম করার জন্য ৫টি বিশ্বস্ত সাইট

 



কন্টেন্ট রাইটিং কি? 

কন্টেন্ট রাইটিং হচ্ছে কোনো একটা বিষয় বা বস্তুর উপর লেখা লেখি করা। সহজভাবে বলতে গেলে কন্টেন্ট রাইটিং মানে যেকোনো বিষয় এর উপর যুক্তি যুক্ত তথ্য প্রদান করা।   কন্টেন্ট রাইটিং অনেক গুলো বিষয় এর উপর নির্ভর করে। একজন ভালো কন্টেন্ট রাইটিং এক্সপার্ট হতে গেলে আপনাকে করতে হবে কঠোর অনুশীলন এবং থাকতে হবে টেকনিক্যাল জ্ঞান। কন্টেন্ট রাইটিং যেকোনো ভাষায় করা যায়, আপনার প্রয়োজন অনুযায়ী আপনি সে ভাষা ব্যবহার করে কন্টেন্ট লিখবেন। 

কন্টেন্ট রাইটারে কাজ কি? 

আমি আগেই বলেছি কন্টেন্ট রাইটিং মানে যেকোনো বিষয় এর উপর যুক্তি যুক্ত তথ্য প্রদান করা। কন্টেন্ট রাইটারের বিভিন্ন প্রকার কাজ বিদ্যমান।  ব্লগ কন্টেন্ট  , ছোট গল্প , ব্লগ রিভিউ, প্রডাক্ট রিভিউ, নিউজ আর্টিকেল, ওয়েবসাইট কন্টেন্ট, প্রডাক্ট কন্টেন্ট  ইত্যাদি সেক্টর এর জন্য কন্টেন্ট রাইটার এর প্রয়োজন রয়েছে। সবচেয়ে মজার বিষয় হলো কন্টেন্ট  রাইটিং করে ভালো মানের টাকা ইনকাম করা সম্ভব।  বর্তমান  সময়ে ভালো মানের কন্টেন্ট রাইটারে অনেক চাহিদা।

কন্টেন্ট রাইটিং  কোন ভাষায় করতে হয়?

আমি শুরুতেই বলেছি আপনার প্রয়োজন অনুযায়ী আপনি সেই ভাষা ব্যবহার করে কন্টেন্ট লিখবেন।  এখন আপনার একটি বাংলা ব্লগ সাইট রয়েছে, আপনাকে অবশ্যই সেখানে বাংলা কন্টেন্ট লিখতে হবে।  মনে করুন আপনার একজন ক্লাইট ইংরেজিতে কন্টেন্ট লিখে চাচ্ছেন,  আপনাকে অবশ্যই তাকে ইংরেজিতে কন্টেন্ট লিখে দিতে হবে।  আপনি চাইলেও তাকে বাংলায় কন্টেন্ট লিখে দিতে পারবেন নাহ।  আপনাকে প্রয়োজন অনুসারে ঠিক করতে হবে আমাকে কোন ভাষায় কন্টেন্ট লেখা উচিত।

কন্টেন্ট রাইটিং করে ইনকাম?

ফ্রিলান্সিং এর মাধ্যমে অনেক উপায়ে টাকা ইনকাম করা যায়, তার মাঝে অন্যতম হল কন্টেন্ট রাইটিং করে আয় করা। আপনার মনে প্রশ্ন হতেই পারে যে আমি কন্টেন্ট রাইটিং করে কি আসলেই আয় করতে পারব? আপনি হয়ত শুনে অবাক হবেন যে আপনার হাতের লেখা যদি অনেক দ্রুত হয়ে থাকে আর আপনি যদি মানসম্মত কন্টেন্ট লিখতে পারেন তাহলে আপনি অনেক টাকা ইনকাম করতে পারেন। যেমন মনে করেন একটি ওয়েবসাইট এর কথা বলি সেটা দেখতে অনেক সুন্দর সবকিছু অনেক সুন্দর করে সাজানো গুছানো আছে কিন্তু তার ভিতরে কোন কন্টেন্ট নেই তাহলে নিশ্চয় সেই সাইট কেউ ভিজিট করবেন না। আপনি নিশ্চয় কোন সাইট দেখতে কেমন তা দেখার জন্য ভিজিট করেন না বরং তার থেকে কোন সেবা পাবেন বা তা থেকে কিছু লাভবান হবেন তার জন্য ওয়েবসাইট ভিজিট করেন,তাই না? এখন আপনি নিশ্চয় বুঝতে পারছেন একজন কন্টেন্ট রাইটারে  এর কতটা গুরুত্ব।

আপনি যেসব সেক্টর এর উপর কন্টেন্ট রাইটিং করতে পারেন তার একটা ছোট আইডি দিলাম -

- ব্লগ কন্টেন্ট রাইটিং।

- স্টোরি রাইটিং।

- ওয়েবসাইট কন্টেন্ট রাইটিং।

- ইমেইল রাইটিং।

- প্রোডাক্ট কন্টেন্ট রাইটিং।

- প্রোডাক্ট রিভিউ।

- ব্লগ রিভিউ।

- ই-বুক রাইটিং।

- একাডেমিক কন্টেন্ট রাইটিং।

- নিউজ পোর্টাল কন্টেন্ট রাইটিং।

- স্কিপ্ট কন্টেন্ট রাইটিং।

- প্রেজেন্টেশন কন্টেন্ট রাইটিং।

কন্টেন্ট রাইটার কেনো দরকার?

আপনাকে আগে বুঝতে হবে আসলে একজন কন্টেন্ট রাইটিং এর কাজ কি। আপনার কাছে একটা বিষয় আছে তা কিভাবে একজন পাঠক এর কাছে তুলে ধরবেন, কতটা সুন্দর ভাবে তুলে ধরবেন তার অনেক টাই নির্ভর করে একজন কন্টেন্ট রাইটারের উপর। মনে করেন আপনার একটি ওয়েবসাইট আছে। সেখানে আপনার কিছু বিষয় আছে যা সবার কাছে তুলে ধরতে চান। আপনি হয়ত জানেন আপনার এইসব বিষয় জানা আছে কিন্তু তা কিভাবে তুলে ধরলে বা কি কি বিষয় জানালে সবাই বারবার আপনার ওয়েবসাইট এ আসবে। এই কাজ করার জন্যই একজন কন্টেন্ট রাইটার খুব দরকার। একজন ওয়েব ডেভেলপার একটি ওয়েবসাইট তৈরি করে দিতে পারেন। কিন্তু তার ভিতর কি কি তথ্য রাখবেন, কি কি তথ্য কিভাবে সাজিয়ে লিখলে তা সবার কাছে গ্রহণযোগ্য হবে তা তিনি জানবেন না। আপনি যদি একজন ভালো কন্টেন্ট রাইটার হয়ে থাকেন বা আপনি কোন কিছু অনেক সুন্দর বা সাবলিলভাবে অন্যের কাছে তুলে ধরতে পারেন তাহলে যার একটি ওয়েবসাইট থাকবে তিনি নিশ্চয় চাইবেন আপনি তার ওয়েবসাইট টি সুন্দরভাবে তুলে ধরেন।

কন্টেন্ট রাইটিং করে কত টাকা ইনকাম করা সম্ভব?

এখন আপনার মনে প্রশ্ন উঠতেই পারে আমি তো কন্টেন্ট রাইটিং করবো,কিন্তু আমি কি যথেষ্ট পরিমাণ টাকা ইনকাম করতে পারব? একজন কন্টেন্ট রাইটারের এর মোটামুটি আয় মাসে ২ হাজার মার্কিন ডলার অর্থাৎ টাকার হিসেবে যদি দেখেন তাহলে ১ লক্ষ ৫০ হাজার এর ও বেশি। আর যারা টপ কন্টেন্ট রাইটারের মাসিক ইনকাম ৪ হাজার মার্কিন ডলার অর্থাৎ প্রায় ৩ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা। এ থেকে আপনি নিশ্চয় বুঝতে পারছেন আপনি যদি কন্টেন্ট রাইটিং  হিসেবে নিজের ফ্রিলান্সার জীবন চালাতে চান আপনি অবশ্যই সফল হবেন।

কন্টেন্ট রাইটিং করতে কি প্রয়োজন?

একজন কন্টেন্ট রাইটিং এক্সপার্ট  হতে হলে আপনার অবশ্যই রাইটিং ক্ষমতা থাকতে হবে। আপনার যদি কোন কিছু রাইটিং  ক্ষমতা না থাকে তাহলে আপনি এই কাজ করতে পারবেন না। যার রাইটিং  ক্ষমতা যত ভালো হবে তার লেখা তত সুন্দর হবে। তাই কন্টেন্ট রাইটিং এক্সপার্ট  হতে হলে আপনার লেখার সুন্দর দক্ষতা থাকতে হবে।

আপনার লেখা যত দ্রুত হবে আপনি নিশ্চয় তত কম সময়ে বেশি কন্টেন্ট  লিখতে পারবেন,তাই একজন কন্টেন্ট রাইটার হতে হলে আপনার লেখা দ্রুত হতে হবে।

আপনি যদি একজন কন্টেন্ট রাইটিং এক্সপার্ট  হতে চান তাহলে যে ভাষায় আপনি কন্টেন্ট রাইটিং করবেন সেই ভাষার উপর দক্ষতা থাকতে হবে। ভাষার দক্ষতা ছাড়া আপনি আপনার মনের লেখার সুন্দর ভাবে তুলে ধরতে পারবেন না। তাই আপনার ভাষার দক্ষতা থাকতে হবে।

সবচেয়ে বড় যে জিনিস প্রয়োজন একজন কন্টেন্ট রাইটিং ফ্রিলান্সার হতে হলে লেগে থাকতে হবে।  আপনার যদি ইচ্ছা থাকে কন্টেন্ট রাইটিং করে নিজের ক্যারিয়ার সাজাবেন তাহলে আপনাকে লেগে থাকতে হবে।  আশা করা যায় আপনি একজন সফল কন্টেন্ট রাইটিং এক্সপার্ট  হতে পারবেন।

কন্টেন্ট রাইটিং করে ইনকাম করার জন্য ৫টি বিশ্বস্ত সাইট - 

TechTunes -

Word Count: 500+ (Negotiable)
Earn Rate: 100 - 2200 Taka  (Per Content)
Payment Method: Bkash

Grathor  -

Word Count: 350+ (Negotiable)
Earn Rate: 08 - 50 Taka (Per Content)
Payment Method: Bkash

Income Tunes -

Word Count: 350+ (Negotiable)
Earn Rate: 50 - 100 Taka (Per Content)
Payment Method: Bkash

OrdinaryIT -

Word Count: 550+ (Negotiable)
Earn Rate: 3000 - 8000 Taka (Per Month)
Payment Method: Bkash

Roarmedia -

Word Count: 500+ (Negotiable)
Earn Rate: 300 - 800 Taka (Per Month)
Payment Method: Bkash


কন্টেন্ট রাইটিং করে ইনকাম করা নিয়ে শেষ কিছু কথা -

উপরের সব গুলো সাইট থেকে কন্টেন্ট রাইটিং করে আপনি ভাল মানের একটি ইনকাম করতে পারবেন । একেক সাইটের কন্টেন্ট রাইটিং করার নিয়ম এক এক রকম । কাজ শুরু করার আগে আপনি সব গুলো বিষয় সম্পকে ভালো করে জেনে নিবেন । 

আপনি যদি নতুন হয়ে থাকেন তাহলে এই সাইট গুলোতে কন্টেন্ট রাইটিং  করে আপনি আপনার কন্টেন্ট রাইটিং এর স্কিল ডেফলপ করে নিতে পারবেন । এবং কন্টেন্ট রাইটিং করে কিছু ইনকাম আশা শুরু করলে আপনি কাজের আরো আগ্রহ পাবেন । আপনি বুজতে পারবেন আপনার কোথায় ভুল হচ্ছে এবং কোথায় সেগুলো ঠিক করতে হবে । 

আপনি যখন নিজেই দক্ষ হয়ে যাবেন কন্টেন্ট রাইটিং এর উপর। তখন আপনি নিজেই একটি ব্লগ সাইট খুলে সেখান থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন । 

Post a Comment

Previous Post Next Post